যারা ককসবাজার যাচ্ছেন/যাবেনঃ

0
30
it24bd

যারা ককসবাজার যাচ্ছেন/যাবেনঃ

it24bd

যারা ককসবাজার যাচ্ছেন/যাবেনঃ * ১ পিস ২৫ টাকা। শহীদ মিনার রোডের মাথায়, পালের দোকানের দধি না খেলে আপনার জন্ম বৃথা। *বলবেন- মিক্স ভর্তা+ভাজি+শাক দিন, ১ প্লেট ১৫০ টাকা। বাহারছড়া রোডের পউষি রেঁস্তোরায় ভাত খেতে গেলে এই জিনিস খাবেন, নচেৎ ককসবাজার ভ্রমণ ৫০% সফল। *১ পিস ১২ টাকা। ইনানীর ঠিক আগে, নতুন যে ব্রীজটি নির্মিত হয়েছে সেখানের একটি কমিউনিটি সেন্টারের সামনের পানের দোকানে দেশীয় পাকা বাঙলা কলা বিক্রয় হয়। সাইজ অনেকটা আপনার বাহুর সমান, অমৃত। *১ পিস ৬ টাকা। উখিয়া বাজারের পশ্চিম পাশে মোটামুটি মানের একটি রেস্টুরেন্টে এই মিষ্টি বিক্রি হয়। মুখে দেবেন আর আমার নাম নিবেন না, অসম্ভব! চ্যালেঞ্জ! *ককসবাজার বাস টার্মিনালের আগে আগে উপজেলা বাজারের শেষ মাথায় হাতের ডান পাশে একটি ছোট টং দোকানে কাঁচা-শুকনা-মিষ্টি দিয়ে পান বিক্রয় হয়, প্রতি পিস ৮ টাকা। খাবেন, আর মনে মনে আমার নাম নেবেন। বাংলার সেরা পান। *১০০ ফিট লম্বা বৌদ্ধমূর্তি মন্দির ফেলে ২০০ গজ সামনে গিয়ে একটা উমগুলার বাগান পাবেন। সেই উম গাছের তাজা রস যা তারি নামে পরিচিত। খাবেন। ১ লিটার ৫০ টাকা। চ্যালেঞ্জ! যত খাবেন আরাম পাবেন। (এটি কোন এ্যালকোহল নয়, অবশ্যই তাজা রস খাবেন) * চকরিয়া-ককসবাজারের মাঝামাঝি খুটাখালী বাজারের মসজিদ মার্কেটে স্তুপ করে পাশাপাশি দুটি দোকানে পেঁয়াজু বিক্রয় হয়, মার্বেল সাইজ। ৪ পিস ১ টাকা। খাবেন, আশা করি আরো ৫০ টাকার পোঁটলা বেঁধে নিয়ে যাবেন। * * রাস্তার পাশের ভাজা, তেলে পুড়া পঁচা মাছ খাবেন না। * * দরদাম ছাড়া রিকশা/টমটমে উঠবেন না। * * হোটেলের রুমে প্রবেশ করে, রুম অন্ধকার রেখে দেখে নিন, কোন ফাঁক থেকে বাইরে থেকে রুম দেখা যায় কিনা, দেখা গেলে রিসিপশনে জানিয়ে ব্যবস্থা নিন। * * অবশ্যই অবশ্যই বাথরুমের গ্লাস/জানালা বন্ধ রাখবেন। * * সেন্টমার্টিন যেতে ভুলেও ডিলাক্স টিকেট নিবেন না। কম দামের/ছাদের/ডেকের টিকেট নেবেন, ভ্রমণ আনন্দময় হবে

Facebook Comments